বিশ্বের সবচেয়ে দামি চিত্রকর্ম সৌদি যুবরাজের ইয়টে!

0

ksa new

 

বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে দামি চিত্রকর্ম লিওনার্দো দা ভিঞ্চির আঁকা ‘সালভাতর মুন্দি’। বছর দুয়েক আগে নিলামে সাড়ে ৪শ’ মিলিয়ন ডলারে (প্রায় ৩ হাজার ৭শ’ কোটি টাকা) বিক্রি হওয়ার পর থেকেই এর অবস্থান নিয়ে রহস্য তৈরি হয়। কে কিনেছেন, কোথায় আছে- এসবের সুনির্দিষ্ট কোনো খোঁজ মিলছিল না।

 

অবশেষে, সোমবার (১০ জুন) লন্ডনভিত্তিক আর্ট ডিলার কেনি স্ক্যাচার আর্টনিউজ নামে একটি ওয়েবসাইটে এর উত্তর দিয়েছেন। তিনি জানান, চিত্রকর্মটি সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের বিলাসবহুল ইয়টে আছে।

 

‘সালভাতর মুন্দি’ অর্থ বিশ্বের রক্ষাকর্তা। ছবিটিতে যিশু খ্রিস্টকে রেনেসাঁ যুগের আদলে নীল রঙের পোশাক পরিহিত অবস্থায় দেখা যায়। সেখানে তিনি ডান হাতের আঙুল উঁচু করে আশীর্বাদ করছেন, বাম হাতে আছে একটি স্বচ্ছ গোলক। ইসলাম ধর্মে যিশু খ্রিস্টকে হযরত ঈসা (আ.) হিসেবে মানা হয়।

 

লিওনার্দো দা ভিঞ্চি ছবিটি এঁকেছিলেন ১৪৯০ সালের দিকে। ২০১৭ সালের ১৫ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে ‘সালভাতর মুন্দি’ নিলামে তুলেছিল ব্রিটিশ প্রতিষ্ঠান ক্রিস্টি’জ। এদিন ৪৫ কোটি ৩ লাখ মার্কিন ডলারে আবুধাবি ডিপার্টমেন্ট অব কালচার অ্যান্ড ট্যুরিজমের পক্ষে চিত্রকর্মটি কেনেন সৌদি যুবরাজ বদর বিন আব্দুল্লাহ বিন মোহাম্মদ বিন ফারহান আল–সৌদ। 

 

২০০৫ সালে রবার্ট সাইমন ও আলেকজান্ডার প্যারিস নামে দুই শিল্প-সংগ্রাহক মাত্র ১০ হাজার ডলারে ‘সালভাতর মুন্দি’ কিনেছিলেন। যদিও তারা তখনো জানতেন না এটি কার আঁকা, ছবিটির অবস্থাও খুব একটা ভালো ছিল না। সাইমনের বন্ধু ডায়ান মোডেস্টিনি কয়েক বছর চেষ্টা করে ছবিটিকে আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনেন। এসময় তারা আবিষ্কার করেন, ছবিটির শিল্পী স্বয়ং লিওনার্দো দা ভিঞ্চি। 

 

এরপর নানা হাত ঘুরে চিত্রকর্মটি একবার কাতারের রাজপরিবারের নিকট যায়। কিন্তু তারা সেটি কেনার প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন। পরে, ৮ কোটি ডলারে চিত্রকর্মটি কিনে নেন রাশিয়ান ধনকুবের দিমিত্রি রবোলভলেভ। তার কাছ থেকেই ছবিটি আসে ক্রিস্টি’জের নিলামঘরে। এর পরের কাহিনী সবার জানা, সবচেয়ে দামি চিত্রকর্মের রেকর্ড গড়ে বিক্রি হয় সেটি। 

 

তবে, নিলামের পর থেকে ছবিটি আর জনসম্মুখে আসেনি। ছবিটি আসল কি-না তা নিয়েও আছে বিতর্ক। অনেকের দাবি, এটি লিওনার্দো নিজের হাতে আঁকেননি, বরং তার ওয়ার্কশপে তৈরি হয়েছে।  

 

নিলামের পর প্রথমদিকে ক্রেতার নাম গোপন রাখা হলেও পরে জানা যায়, ছবিটি সৌদি যুবরাজ বদর বিন আব্দুল্লাহ কিনে নিয়েছেন। সৌদি রাজ পরিবারের সদস্য হিসেবে তার নাম খুব একটা পরিচিত নয়। ধারণা করা হয়, সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের পক্ষেই চিত্রকর্মটি কিনেছেন তিনি।

 

তবে, এ নিয়ে কখনোই মুখ খোলেনি সৌদি রাজ পরিবার। বিষয়টিকে তারা অবশ্য অস্বীকারও করেননি। 

শতভাগ নিশ্চিত না হলেও কেনি স্ক্যাচারের দাবি, ‘সালভাতর মুন্দি’ কেনার পর সেটি বদর বিন আব্দুল্লাহর প্লেনে করে রাতের আঁধারে নিয়ে যাওয়া হয়। এখন সেটি যুবরাজ সালমানের ইয়টে আছে।

 

তিনি আরও জানান, আল-উলা শহরটিকে দেশের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে তৈরি করছে সৌদি আরব। ‘সালভাতর মুন্দি’র স্থায়ী ঠিকানা হবে এ শহরেই। সেটা না হওয়া পর্যন্ত এটি ইয়টেই থাকছে।

Comments

comments

Comments

comments

Comments

comments

Menu

Koreabashi