মালয়েশিয়ায় ইসলামের সমালোচনা করে বিপাকে সাংবাদিক

0

pp2

 

 

ইসলাম সম্পর্কে রঙ্গরসিকতা করে বিপদে পড়েছেন মালয়েশিয়ার এক ভিডিও সাংবাদিক। তাকে এখন নানা ধরনের হুমকি দেয়া হচ্ছে এবং তার বিরুদ্ধে শুরু হয়েছে পুলিশী তদন্ত। মালয়েশিয়ার ইসলামপন্থী দল পাস সে দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ কেলান্তানে ইসলামী হুদুদ আইন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে একটি প্রস্তাব এনেছে। এতে ধর্মদ্রোহিতা, ব্যাভিচার, চুরি-ডাকাতি ইত্যাদি অপরাধের জন্য শিরশ্ছেদ, প্রকাশ্য প্রাণদন্ড, অঙ্গচ্ছেদ ইত্যাদি শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে। সৌদি আরব এবং ইরান ছাড়া বেশিরভাগ মুসলামান-প্রধান দেশে শরীয়া আইনের এত কঠোর প্রয়োগ নেই।

 

এর সমালোচনা করেই বেসরকারি রেডিও বিএফএম-এর সাংবাদিক আইসিয়া তাজুদ্দিন তৈরি করেছিলেন একটি হালকা মেজাজের ব্যঙ্গাত্মক ভিডিও, যার শিরোনাম ছিল হুদুদ: ভাতের থালার ইস্যু। এতে দেখানো হয়েছে তিনি কেলান্তানের কাল্পনিক সীমান্ত অতিক্রম করার সাথে সাথেই ম্যাজিকের মত তার মাথা হিজাবে ঢেকে গিয়েছে। এরপর তিনি একাট খাবারের প্যাকেট খুলছেন, কিন্তু সেখানে ভাতের বদলে তিনি পেয়েছেন পাথর। পাথরটিকে ছুঁড়ে ফেলে দিয়ে তিনি বলছেন, ভাতের আর কী দরকার হুদুদ তো আছেই।

 

বিষয়টিকে ব্যাখ্যা করে আইসিয়া তাজুদ্দিন পরে জানিয়েছেন, এই ভিডিও’র মধ্য দিয়ে তিনি বোঝাতে চেয়েছেন যে রাজনৈতিক দল হিসেবে পাস-এর উচিত হবে ইসলামী আইন নিয়ে বেশি চিন্তাভাবনা না করে ঐ প্রদেশের বন্যা-পরবর্তী পূনর্গঠন এবং অর্থনীতি নিয়ে কাজ করা। বিএফএম ভিডিওটি ইউটিউবে প্রকাশের পর থেকেই এ নিয়ে শুরু হয় তুমুল হৈচৈ। পক্ষে বিপক্ষে শুরু হয় বিতর্ক। এক পর্যায়ে সেটি ছড়িয়ে পড়ে ফেসবুকে। পরে ইউটিউব থেকে ভিডিওটি সরিয়ে ফেলা হয়। এত শোরগোলের মুখে পুলিশ আইসিয়া তাজুদ্দিনের বিরুদ্ধে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে। দোষী প্রমাণিত হলে তার সর্বোচ্চ এক বছরের সাজা হতে পারে।
সূত্র: বিবিসি বাংলা 

Comments

comments

Menu

Koreabashi