ভিডিওতে তরুণদের ছেড়ে বয়স্কদের টার্গেট করেছে ফেসবুক

0

a1

 

ফেসবুক এখন আর তরুণদের নয়, বুড়োদের স্থান। ফেসবুকের সাম্প্রতিক উদ্যোগ সেটাই বলে। ইউটিউবের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করতে ওয়াচ নামের ভিডিও প্ল্যাটফর্ম চালু করলেও দর্শকখরায় ভুগতে হচ্ছে। বিশেষ করে তরুণ দর্শকেরা ফেসবুকের ভিডিও দেখছে না। ফেসবুককে তাই অন্য পথে হাঁটতে হচ্ছে। ভিডিও নির্মাতাদের ৩০ বছর বয়সী বা তার চেয়ে বেশি বয়সী দর্শকের লক্ষ্য করে ভিডিও ছাড়তে বলছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

 

গত অক্টোবর মাসে ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ বলেছিলেন, ফেসবুকের ভবিষ্যতের জন্য ভিডিও, মেসেজিং ও স্টোরিজকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। তবে সাম্প্রতিক কয়েকটি গবেষণায় দেখা গেছে, ফেসবুক থেকে তরুণেরা মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন। সেখানে এখন বয়স্ক মানুষের সংখ্যা বেশি। ওয়াচ নিয়ে ফেসবুকের সাম্প্রতিক নির্দেশনা সে বিষয়টির ইঙ্গিত দেয়।

গত বছরের আগস্ট মাসে ভিডিও কনটেন্ট হাব হিসেবে ওয়াচ চালু করে ফেসবুক। ডিজিটাল ভিডিও বিজ্ঞাপনের বাজার ধরতে এ উদ্যোগের পেছনে ব্যাপক বিনিয়োগ করেছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

 

সিএনবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ভিডিও খাতে ছড়ি ঘোরানোর যে লক্ষ্য নিয়ে ফেসবুক এগোচ্ছিল, তাতে বাগড়া বাধতে পারে। এ বছরের শুরুর দিকে ফেসবুকের দেওয়া পূর্বাভাস অনুযায়ী, বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে এসে ফেসবুকের আয় কমেছে। এ ছাড়া ফেসবুকের শেয়ারের দামও পড়েছে। ফেসবুকের আয় বাড়াতে ভিডিও বিজ্ঞাপনের দিকে জোর দিতে হচ্ছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে।

 

বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইমার্কেটারের তথ্য অনুযায়ী, ১০০ কোটি মার্কিন ডলার খরচ করে বিভিন্ন কনটেন্ট কিনেছে ফেসবুক। কিন্তু ফেসবুকের ওয়াচ জমছে না। অনেকেই ফেসবুকের এ কনটেন্টে বিজ্ঞাপন দিতে চাইছেন না। এর বাইরে ফেসবুকের কনটেন্ট চুক্তি করার কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তা সারাহ ম্যাডিগান ফেসবুকের চাকরি ছেড়ে দিয়েছেন।

 

গবেষণা প্রতিষ্ঠান নিয়েলসেনের তথ্য অনুযায়ী, ফেসবুকে সময় ব্যয় করার হার গত বছরের চেয়ে ৭ শতাংশ কমেছে।

গত আগস্ট মাসে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল, প্রতি মাসে পাঁচ কোটি যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবহারকারী ওয়াচে ভিডিও কনটেন্ট দেখছেন। ইউটিউবের তুলনায় এতে ব্যবহারকারী সামান্য। গত মে মাসে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল, প্রতি মাসে ইউটিউবে ১৮০ কোটি ব্যবহারকারী লগইন করেন।

 

ফেসবুক কর্তৃপক্ষের ভাষ্য, ওয়াচ ব্র্যান্ডটি এখনো পরিচিত হয়ে ওঠেনি, তাই দর্শকেরা আসছেন না। 

ওয়াচের জন্য বড় ধাক্কা হচ্ছে তরুণদের আকর্ষণ করতে না পারা। যুক্তরাষ্ট্রের বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান পাইপার জাফরির সাম্প্রতিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, চলতি বছরে যুক্তরাষ্ট্রের তরুণদের মধ্যে মাত্র ৩৬ শতাংশ মাসে একবার ফেসবুকে ঢোকেন, যা দুই বছর আগে ছিল ৫২ শতাংশ। বিষয়টি মাথায় রেখেই বয়স্ক ব্যবহারকারীদের জন্য ভিডিও কনটেন্টের ওপর জোর দিচ্ছে ফেসবুক।

 

অবশ্য, ফেসবুকের জন্য সুখবর দিচ্ছে তাদের আরেক সেবা ইনস্টাগ্রাম। ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরের পর থেকে এ বছরের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৬৪ শতাংশ ব্যবহারকারী বেড়েছে ইনস্টাগ্রামে। ব্যবহারকারীদের মধ্যে তরুণেরা রয়েছেন। বিজ্ঞাপনদাতারা ফেসবুক ওয়াচে না গিয়ে ইনস্টাগ্রাম স্টোরিজে আগ্রহ দেখাচ্ছেন বেশি।

 

Source : প্রথম আলো

Comments

comments

Menu

Koreabashi