যেভাবে দক্ষিণ কোরিয়ায় বাংলাদেশের ডিজিটাল পাসপোর্টের জন্য আবেদন করবেন

0

bangladesh-passport

 

দক্ষিণ কোরিয়ায় বসবাসরত বাংলাদেশীরা প্রায়ই বাংলাদেশের জন্য ডিজিটাল পাসপোর্ট কি করে করবেন আর কোথায় কোন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে এই কাজ সুসম্পন্ন করবেন এসব নিয়ে বিপাকে পড়েন। কিন্তু মোটামুটি একটা ধারণা থাকলেই এই ডিজিটাল পাসপোর্ট আবেদন সম্পর্কিত ভোগান্তি থেকে আপনি রক্ষা পেতে পারেন। তাই বিপাকে পড়া ডিজিটাল পাসপোর্ট এর আবেদন করা নিয়ে বিপাকে পড়া বাঙ্গালীদের ভোগান্তি কমাতে এখানে দক্ষিণ কোরিয়ায় ডিজিটাল পাসপোর্ট এর আবেদন সম্পর্কিত কিছু তথ্য উপস্থাপন করা হল।

আপনাকে যা যা করতে হবেঃ

প্রথমেই আপনাকে পাসপোর্ট প্রাপ্তির জন্য দূতাবাসের কনস্যুলার উইং এ ইমেইল করে(mission.seoul@mofa.gov.bd) বা ৭৯৬৪০৫৬\৭ এই নম্বরে ফোন করে আপনার দূতাবাসে আগমনের তারিখ ও সময় নির্ধারণ করে নিন। মনে রাখবেন পূর্ব নির্ধারিত সাক্ষাতের সময়ের ছাড়া আবেদনপত্র গ্রহণযোগ্য হবে না। আর আবেদনের সময় আবেদনকারীকে অবশই সশরীরে উপস্থিত থাকতে হবে।

এরপর চারপাতার আবেদন ফরমটি আপনাকে যথাযথভাবে পূরণ করতে হবে। আবেদনকারীকে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। আরও বিস্তারিত তথ্যর জন্য ভিজিট করতে পারেন www.passport.gov.bd।এতে করে কম সময়ে দূতাবাসে এনরোলমেন্ট করা সম্ভব হবে। অনলাইনে আবেদনপত্র জমা দেওয়ার পর সেটার এক কপি প্রিন্ট করে নিজের সাক্ষর সহ দূতাবাসে জমা দিতে হবে। কোন কারনে অনলাইনে আবেদন করা সম্ভব না হলে নির্ধারিত ওয়েব সাইট (www.passport.gov.bd বা www.dip.gov.bd)  থেকে ফরম ডাউন লোড করতে পারেন বা দূতাবাস থেকে সংগ্রহ করতে পারেন।

আবেদনপত্র পূরণ করার পূর্বে আবেদনপত্রের ৪নং পৃষ্ঠায় বর্ণিত নিয়মাবলী ভালভাবে পড়ুন। যাদের বরতমান পাসপোর্ট আছে তারা একসেট আবেদনপত্র জমা দিবেন আর যাদের পাসপোর্ট নেই তারা দুইসেট ফরম জমা দিবেন। মনে রাখবেন অসম্পূর্ণ আবেদনপত্রের উপর কোন কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে না।

আবেদনপত্রের সাথে যেসব কাগজপত্র জমা দিতে হবেঃ

  • বাংলাদেশের জাতীয় পরিচয়পত্র ও জন্ম নিবন্ধন সনদপত্রের কপি। জন্ম নিবন্ধন সনদপত্র ১৭ ডিজিট ও জাতীয় পরিচয়পত্র কমপক্ষে ১৩ ডিজিটের হতে হবে। যাদের কোনটাই নেই তারা দূতাবাসে আবেদনের সময় নির্ধারিত ফি জমাদান পূর্বক জন্ম নিবন্ধন সনদ গ্রহণ করতে পারবেন। আর জন্ম সনদের জন্য নিয়মাবলী ও ফরম দূতাবাসের ওয়েব সাইট থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন।
  • আবেদনকারীর নিকট বিদ্যমান বাংলাদেশী পাসপোর্ট ও পাসপোর্টের ১ থেকে ৯ পাতা পর্যন্ত ছায়ালিপি দুই প্রস্থ কাগজে হওয়া জরুরী। প্রয়োজনে কপি একই কাগজের উল্টা পৃষ্ঠায়ও করা যেতে পারে।
  • সাদা পটভূমিতে সম্প্রতি তোলা ২ কপি রঙ্গিন ছবি(সাইজ ৫৫×৪৫ মিমি) আবেদনপত্রের সাথে জমা দিতে হবে। যদি আবেদনকারীর বয়স ১৫ বছরের নীচে হয় তাহলে আবেদনকারীর পিতামাতার এক কপি করে রঙ্গিন ছবি(সাইজ ৩০×২৫) আবেদনপত্রের সাথে জমা দিতে হবে।

 

Comments

comments

Menu

Koreabashi