আর্জেন্টিনা থাকছে

0
messi koreabashi
 
অবশেষে সব সমীকরণ মিলেছে। নাইজেরিয়া ও আইসল্যান্ডের হার। মেসির গোল। আর্জেন্টিনার জয়। এবং দ্বিতীয় রাউন্ডে। ম্যাচের ৮৬ মিনিট পর্যন্ত ১-১ গোলে সমতায়  থাকা ম্যাচে দলকে স্বস্তির জয় এনে দেয় মার্কোস রোহ। মাচের শুরুতে মেসির গোলে এগিয়ে ছিল আর্জেন্টিনা। এই জয়ে চার পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের দ্বিতীয় দল হিসেবে দ্বিতীয় রাউন্ডের টিকিট নিশ্চিত করছে। এবার স্বপ্ন দেখার পালা মেসি সমর্থকদের। 
 
সেন্ট পিটার্স বুর্গে ম্যাচের শুরুতেই দু’দলই মাঝমাঠ দখলের প্রচেষ্টা চালায়। আর্জেন্টিনা  ল্যাটিন ঘরনার ৪-৪-২ ফরমেশনে এবং নাইজেরিয়া ৩-৫-২ ফরমেশনে দল সাজায়। নাইজেরিয়া আগের ম্যাচে আইসল্যান্ডের বিপক্ষের দলকেই মাঠে নামালে আর্জেন্টিনা দলে চার পরিবর্তন আসে। গোলে আরমানি,  রক্ষণভাগে বেনেগা এবং আক্রমন ভাগে ডি মারিয়া ও হিগুইন। 
 
১৪ মিনিটে মেসির পায়ে আসে গোল, এগিয়ে যায় আর্জেন্টিনা। মাঝমাঠ থেকে ডি মারিয়ার বাড়ানো থ্রু নাইজেরিয়ার বক্সে মেসি আয়ত্বে নিয়ে কেনেথ ওমেরুকে কাটিয়ে গোলরক্ষক ফ্রান্সিস উজোহোকে বোকা বানিয়ে বল জালে পাঠান (১-০)।  এটি এবারের বিশ্বকাপে শততম গোল। 
 
২৯ মিনিটে গোলের সযোগ হারায় আর্জেন্টিনা। প্রায় ৩০ গজ দুর খেকে নাইজেরিয়ার বক্সে  হিগুয়েনকে বল পাঠান মেসি। হিগুয়েন বল আয়ত্বে নেয়ার আগেই নাইজেরিয়ার গোলরক্ষক মাটিতে পড়ে রক্ষা করেন। ৩৩ মিনিটে ডি মারিয়াকে ডি বক্সের বাইরে ফাউল করলে ফ্রিকিক পায়  আর্জেন্টিনা। মেসির বা পয়ের বাকানো শট নাইজেরিয়ার   সাইড বারে লেগে  ফিরে আসে।  পরবর্তীতে আর্জেন্টিনা আক্রমন তীব্রতর করলেও, গোল আসেনি। ফলে ১-০ গোলে লিড নিয়েই বিরতিতে যায় মেসি-হিগুয়েনরা।  
দ্বিতীয়ার্ধেও চতুর্থ মিনিটে খেলায় সমতা আসে। আর্জেন্টিনার বক্সেও মধ্যে মাচরেনো নাইজেরিয়ার বালাগোনাকে ফেলে দিলে রেফরী পেনাল্টির নির্দেশ দেয়।  ভিক্টর মসেস আলতো শটে আরমানিকে ফাঁকি দিয়ে বল জালে পাঠান। সমতার পর আর্জেন্টিনা কিছুটা অগোছালো খেললেও  নাইজেরিয়া আক্রমণ অব্যাহত রাখে। তবে ক্রমেই ম্যাচে ফেরে আর্জেন্টিনা। খেলা এগিয়ে চলে সমানে সমানে। 
 
৭০ মিনিটে  পাল্টা আক্রমণ থেকে নাইজেরিয়ার উইলফ্রেড এনদিদির দূরপাল্লার শট বারের ওপর দিয়ে চলে যায়। ৭৬ মিনিটে আর্জেন্টিনার বক্সেও মধ্যে হেড করতে গিয়ে পাভোনোর হাতে বল লাগলেও, রেফারি  ভিএআর দেখে অনিচ্ছাকৃত হ্যান্ড বলে  পেনাল্টি দেননি। 
 
ম্যাচের ৮৭ মিনিটে আর্জেন্টিনার হয়ে দ্বিতীয় গোল করেন মার্কোস রোহো। বা পাশ দিয়ে হিগুয়েনের বাড়ানো পাসে ডান পায়ের শটে বল জালে পাঠান জালে(২-১)।  স্বস্তি ফিওে আসে আর্জেন্টিনার সমর্তকদের মধ্যে।  
 
ক্রোয়েশিয়া-আইসল্যান্ড
দ্বিতীয়ার্ধের অষ্টম মিনিটেই এগিয়ে যেতে পারতো ক্রোয়েশিয়া। কিন্তু মিডফিল্ডার মিলান বাদেলেইয়ের শটে বল রাগনার সিগুর্দসনের গায়ে লেগে ক্রসবারে বাধা পায়। 
 
পরের মিনিটে খেলার ধারার বিপরীতে এগিয়ে যায় ক্রোয়েশিয়া। বাঁ-দিক দিয়ে দ্রুত ডি-বক্সে ঢুকে এক জনকে কাটিয়ে কাটব্যাক করেন লুকা মদ্রিচ। বল এক প্রতিপক্ষের পায়ে লেগে উপরে উঠে যায়। ছুটে এসে জোরালো শটে বল জালে জড়ান বাদেলেই।
 
৭৬তম মিনিটে গিলফি সিগুর্দসনের সফল স্পট কিকে সমতায় ফেরে আইসল্যান্ড। ক্রোয়েশিয়ার ডি-বক্সে তাদের ডিফেন্ডার দেয়ান লভরেনের হাতে বল লাগলে পেনাল্টিটি পায় আইসল্যান্ড। নাইজেরিয়ার বিপক্ষে পেনাল্টি থেকে গোল করতে ব্যর্থ হয়েছিলেন সিগুর্দসন। এবার আর কোনো ভুল করেননি।

Comments

comments

Comments

comments

Menu

Koreabashi