শুরু হলো মধুর রসের মাস

0

fruit3

 

ষড়ঋতুর দেশ আমাদের এই বাংলাদেশ। ঋতু অনুযায়ী এখন গ্রীষ্মকাল। আরো সুনির্দিষ্ট করে বললে আজ থেকে শুরু হলো বাংলা সনের দ্বিতীয় মাস জৈষ্ঠ্য। এ মাসে বিভিন্ন ধরনের রসালো ফল পাওয়া যায়। ফল ভিটামিনের চাহিদা পূরণ করে। মনপ্রাণ চাঙ্গা রাখে। রোগ প্রতিরোধ করে। ফলে রয়েছে অনন্য খাদ্যপ্রাণ।

 

আম, জাম, লিচু, কাঁঠাল, জামরুল, আনারস, কলা ছাড়াও এ মাসে মিলবে লটকন, পেয়ারা, বাঙ্গি ইত্যাদি। আম এবং লিচু ইতিমধ্যেই বাজারে চলে এসেছে। কিছুদিনের মধ্যেই পাওয়া যাবে পাকা কাঁঠাল। এটি আমাদের জাতীয় ফল। জাম, জামরুল, পেয়ারা, আনারসও পাওয়া যাবে। কলার ফলনও এই সময় বেশি হয়। তবে এখানেই শেষ নয়, মাসের শেষ দিকে পাওয়া যাবে কামরাঙা, ছফেদা, গাব, আমড়া ইত্যাদি।

 

কাঁঠাল জাতীয় ফল হলেও আমের গুরুত্ব কম নয়। নানা জাতের আম এ দেশে পাওয়া যায়। দেশি আম টক-মিষ্টি স্বাদের হয়ে থাকে। গোপাল ভোগ, ক্ষিরসাপাত, ল্যাংড়া, রানীভোগ, ফজলি এগুলো মিষ্টি স্বাদের আম। এ ছাড়াও এখন দেশে নতুন জাতের আম ফলছে। যেমন আম্রপালি, রূপালি, সোনালী, হাড়িভাঙ্গা, সূর্যপূরী, কাঁচামিঠা ইত্যাদি।

 

কাঁঠাল এমন একটি ফল যা কাঁচা ও পাকা দুই অবস্থাতেই খাওয়া যায়। কাঁচা কাঁঠালকে এচোর বলা হয়। এই কাঁঠালে তরকারি হয়। কাঁঠালের বিচি অনেকেরই প্রিয় খাবার। এর বাইরের ছোকলা গৃহপালিত প্রাণী যেমন গরু, ছাগলের প্রিয় খাদ্য।

 

আম প্রায় সকলেরই প্রিয় ফল। লিচুও তাই। আম এই মাসের ফল হলেও ভাদ্র-আশ্বিন মাসেও পাওয়া যায়। কিন্তু লিচু খুব স্বল্প সময়ের ফল। বাজারে এর স্থায়ীত্ব প্রায় ৩ সপ্তাহ। দেশে সাধারণত চার প্রকার লিচু পাওয়া যায়। যেমন দেশি, বোম্বাই, চায়না এবং বেদানা জাতের। বেদানা জাতের লিচুর দাম সবচেয়ে বেশি। এই লিচু দিনাজপুর এলাকায় বেশি জন্মে। জামও স্বল্প সময়ের ফল। জাম কয়েক প্রকার- বড় জাম, ছোট জাম এবং ক্ষুদে জাম। ক্ষুদে জাতের জাম পাওয়া যায় ভাদ্র-আশ্বিন মাসে।

 

ফল রোগ প্রতিরোধক এবং রোগ নিরাময়কও বটে। এক কথায় বলা যায়, ফল মহান সৃষ্টিকর্তার নিয়ামকস্বরূপ। শুধু মানুষই নয় পশুপাখিরও প্রিয় খাদ্য ফল। তবে এক শ্রেণীর অসাধু ফল ব্যবসায়ী ফলে রাসায়নিক দ্রব্য মিশিয়ে বিক্রি করে। এটা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। ফল কেনার আগে এ বিষয়ে সবাইকে সজাগ হতে হবে। কর্তৃপক্ষকেও এর বিরুদ্ধে নিতে হবে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা। পাশাপাশি গড়ে তুলতে হবে সামাজিক সচেতনতা।

Comments

comments

Menu

Koreabashi