দক্ষিন কোরিয়া সম্পর্কে জানুন পর্ব -৩

0

 

দক্ষিন কোরিয়া সম্পর্কে জানতে গিয়ে গত দুই পর্বে আমরা দক্ষিন কোরিয়ার ইতিহাসের একটি সংক্ষিপ্ত ধারনা পেয়েছি, আর আজকের পর্বে আমরা দক্ষিন কোরিয়ার প্রশাসনিক ব্যবস্থা সম্পর্কে জানব।

গত পর্বের লেখাটি ছিলঃ দক্ষিন কোরিয়া সম্পর্কে জানুন পর্ব -২

 

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রশাসনিক ব্যবস্থা হল মূলত একটি রাষ্ট্রপতিশাসিত বহুদলীয় প্রতিনিধিত্বমূলক গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র। রাষ্ট্রপতিই হPresident_Park_Geun_Hyeলেন এই রাষ্ট্রের প্রধান। সরকারের হাতে থাকে নির্বাহী ক্ষমতার অধিকার। যেকোনো আইন প্রণয়নের ক্ষমতা সরকার এবং আইনসভা উভয়ের উপর একই সাথে উপনীত থাকে। দক্ষিন কোরিয়ার বিচার বিভাগ নির্বাহী বিভাগ ও আইন প্রণয়ন বিভাগ হতে সম্পূর্ণ স্বাধীন। একটু পিছনে ফিরে তাকালে আমরা দেখতে পাই ১৯৪৮ সাল থেকে দক্ষিণ কোরিয়ার সংবিধানে  মোট ৫টি বড় ধরনের সংশোধনী আনা হয়েছে।

 

সেক্ষেত্রে প্রতিটি সংশোধনী একটি নতুন প্রজাতন্ত্রের সূচনা হিসেবে গণ্য করা হয়ে থাকে। বর্তমান যে প্রজাতন্ত্রটি অনুসরণ করা হচ্ছে তা ১৯৮৮ সালের সংবিধান সংশোধনীর পর থেকে বর্তমান পর্যন্ত বহাল রয়েছে। 

রাষ্ট্রপতি নির্বাচন জনগনের ভোটের উপর নির্ভরশীল। রাষ্ট্রপতি দেশটির জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে মোট ৫ বছর মেয়াদের জন্য নির্বাচিত হয়ে থাকেন। দক্ষিণ কোরিয়ার বর্তমান রাষ্ট্রপতি হলেন পার্ক গিউন-হে (Park Geun-hye)। ২০১৩ সালের ২৫শে ফেব্রুয়ারী তিনি দক্ষিন কোরিয়ার রাষ্ট্রপতি হিসেবে নির্বাচিত হন। তিনি দেশটির ১১তম রাষ্ট্রপতি এবং প্রথম মহিলা রাষ্ট্রপতি।

 

Comments

comments

Menu

Koreabashi